KiHobe Latest Articles

Anonymous
  • 1

মাকড়শা কি আমাদের বন্ধু ? মাকড়শা যদি নির্মূল হয়ে যায়

  • 1

মাকড়শা কি আমাদের বন্ধু ? মাকড়শা যদি নির্মূল হয়ে যায়

Leave an answer

You must login to add an answer.

2 Answers

  1. মাকড়শা আপনার আঙ্গিনায়, আপনার দেয়ালে ,আপনার আশেপাশের মধ্যে রয়েছে। রতিটি মানুষের তুলনায় বা বিপরীতে ২.৮ মিলিয়ন মাকড়সা আছে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করেন

    আপনি যদি সব মাকড়শা নির্মূল করতে চান তা হলে আপনার জানতে হবে এটা আমাদের জন্য ভালো নাকি খারাপ দিক হবে। কারণ আন্তর্জাতিক ভাবে কাজ করলে সমস্ত মাকড়শা নির্মূল করা সম্ভব

    মাকড়সা উৎপাদনশীল এবং বহুসন্তান প্রসূ প্রাণী । বর্তমানে আমরা প্রায় 45,000 প্রজাতির মাকড়সা সম্পর্কে জানি এবং বিজ্ঞানীরা অনুমান করেছেন যে আমরা এখনও আবিষ্কার করতে পারি নি এমন পরিমাণের দ্বিগুণ রয়েছে। এগুলি আকারেও বিশাল আকারের। সামোয়ান মোস স্পাইডার গুলি মাত্র ০.৩ মিলিমিটার অপরদিকে আফ্রিকায় কিছু মাকড়সা দেখা যায় যা ১২ ইঞ্চি পরিমান সমান

    মাকড়সার প্রতিটি প্রজাতিতে গড়ে 500 টির বিভিন্ন্য ধরণের বিষ রয়েছে, যা তাদের শিকারকে আহত
    করতে, হত্যা করতে এবং তাদের দুর্বল করতে সাহায্য করে , তবে তারা মানুষের পক্ষে কতটা বিপজ্জনক? ১২ ধরণের মাকড়সা আসলেই মানুষের ক্ষতি করতে পারে।

    মাকড়সার কামড় অন্যান্য পোকামাকড়ের মতো নয়, তারা যখন হুমকির মধ্যে পড়ে কেবল তখনই কামড়ায়। তারা মশা, মাছির মতো রোগ সংক্রমণ করে না। কিছু মাকড়সা সাহায্যকারীভাবে সেই রক্ত খেকু কীটপতঙ্গগুলিকে খেয়ে ফেলে , তাই আমাদের তাদের ধন্যবাদ জানানো উচিত।

    পৃথিবীতে অনেক লোক আছে যারা মাকড়শা খায় তাই মাকড়শা পৃথিবীর অনেক খাদ্য অভাব ঘাটতি পূরক করতেছে মাকড়শা কেবলমাত্র মাসুষের খাদ্য উৎস নয় বরং গবেষণা করে দেখা গেছে মাকড়সা থেকে দামি রেশম এবং এর বিষ থেকে উদ্ভাবনী ওষুদ বাবানো হচ্ছে।

    নিউ ইয়র্ককের একটি বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষকরা করে দেখেছে যে পেশীর পুষ্টির অভাব.চিকিত্সার জন্য মাকড়সা কাজ করবে বলে মনে করেন। দক্ষিণ আমেরিকার একটি মাকড়সার বিষ পরীক্ষা করে দেখছেন নীল পর্বতমালার ফানেল ওয়েব মাকড়সার বিষগুলি ম্যালেরিয়া মোকাবেলায় ব্যবহৃত হচ্ছে।

    , যদি আমরা প্রথমে মাকড়সার সঠিক ব্যবহার করতে পারি, এবং এই মাকড়শা -শক্তিশালী উপাদান হিসাবে ইন্ডাস্ট্রিয়াল উচ্চ প্রক্রিয়াজাত উপাদানের বিকল্প হিসাবে বিপ্লব করতে পারে এবং এটি ইকো ফ্রেন্ডলি হবে এমনকি এটি দ্বারা কৃত্রিম লিগামেন্ট, টেন্ডস এবং সার্জিকাল প্রোডাক্সটস তৈরি তৈরি করা হচ্ছে।

    আমরা মাকড়সা মেরে ফেললে এই নতুনত্ব সম্ভাবনা থেমে যাবে আর এমনকি পৃথিবীটি এর অস্তিত্ব রুদ্ধ হতে পারে।
    যদিও কিছু প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে মাকড়সার অনুপস্থিতিতে মানবজাতি খাদ্য সংকটজনিত কারণে পাঁচ বছরেরও কম সময়ে মারা যাবে, অন্য গবেষকরা আরও সন্দেহবাদী। ব্রাসেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন যে মাকড়সা অন্ধকার বন এবং গভীর তৃণভূমিতে আরও বেশি শিকার করে যা কৃষিক্ষেত্রে তেমন কিছু আমরা বুজতে পারিনা।

    কিছু বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে বাদুড়, পাখি এবং টিকটিকি যেমন জনসংখ্যার বর্ধনের সাথে প্রকৃতি শূন্যতা পূরণ করতে মানিয়ে আছে তাই আমরা সমস্ত মাকড়সা মেরে দেওয়ার পরেও যদি পৃথিবী শেষ না হয়, তবুও তারা আমাদের পরিবেশ ও স্বাস্থ্যে একটি বিশাল এবং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

    সুতরাং আমরা ভিডিওটি দেখার পরে মাকড়সা দেখকলে একটু দয়ালু হওয়া উচিত। মাকড়সার অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখুন এবং এর সাথে বন্ধুত্বের তৈরী করুন। সর্বোপরি, এটি সম্ভবত মশার মতো আরও ঝামেলা পোকার থেকে আপনার বাড়িকে রক্ষণাবেক্ষণ করছে।

  2. মাকড়শা আপনার আঙ্গিনায়, আপনার দেয়ালে ,আপনার আশেপাশের মধ্যে রয়েছে। রতিটি মানুষের তুলনায় বা বিপরীতে ২.৮ মিলিয়ন মাকড়সা আছে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করেন

    আপনি যদি সব মাকড়শা নির্মূল করতে চান তা হলে আপনার জানতে হবে এটা আমাদের জন্য ভালো নাকি খারাপ দিক হবে। কারণ আন্তর্জাতিক ভাবে কাজ করলে সমস্ত মাকড়শা নির্মূল করা সম্ভব

    মাকড়সা উৎপাদনশীল এবং বহুসন্তান প্রসূ প্রাণী । বর্তমানে আমরা প্রায় 45,000 প্রজাতির মাকড়সা সম্পর্কে জানি এবং বিজ্ঞানীরা অনুমান করেছেন যে আমরা এখনও আবিষ্কার করতে পারি নি এমন পরিমাণের দ্বিগুণ রয়েছে। এগুলি আকারেও বিশাল আকারের। সামোয়ান মোস স্পাইডার গুলি মাত্র ০.৩ মিলিমিটার অপরদিকে আফ্রিকায় কিছু মাকড়সা দেখা যায় যা ১২ ইঞ্চি পরিমান সমান

    মাকড়সার প্রতিটি প্রজাতিতে গড়ে 500 টির বিভিন্ন্য ধরণের বিষ রয়েছে, যা তাদের শিকারকে আহত
    করতে, হত্যা করতে এবং তাদের দুর্বল করতে সাহায্য করে , তবে তারা মানুষের পক্ষে কতটা বিপজ্জনক? ১২ ধরণের মাকড়সা আসলেই মানুষের ক্ষতি করতে পারে।

    মাকড়সার কামড় অন্যান্য পোকামাকড়ের মতো নয়, তারা যখন হুমকির মধ্যে পড়ে কেবল তখনই কামড়ায়। তারা মশা, মাছির মতো রোগ সংক্রমণ করে না। কিছু মাকড়সা সাহায্যকারীভাবে সেই রক্ত খেকু কীটপতঙ্গগুলিকে খেয়ে ফেলে , তাই আমাদের তাদের ধন্যবাদ জানানো উচিত।

    পৃথিবীতে অনেক লোক আছে যারা মাকড়শা খায় তাই মাকড়শা পৃথিবীর অনেক খাদ্য অভাব ঘাটতি পূরক করতেছে মাকড়শা কেবলমাত্র মাসুষের খাদ্য উৎস নয় বরং গবেষণা করে দেখা গেছে মাকড়সা থেকে দামি রেশম এবং এর বিষ থেকে উদ্ভাবনী ওষুদ বাবানো হচ্ছে।

    নিউ ইয়র্ককের একটি বিশ্ববিদ্যালয়, গবেষকরা করে দেখেছে যে পেশীর পুষ্টির অভাব.চিকিত্সার জন্য মাকড়সা কাজ করবে বলে মনে করেন। দক্ষিণ আমেরিকার একটি মাকড়সার বিষ পরীক্ষা করে দেখছেন নীল পর্বতমালার ফানেল ওয়েব মাকড়সার বিষগুলি ম্যালেরিয়া মোকাবেলায় ব্যবহৃত হচ্ছে।

    , যদি আমরা প্রথমে মাকড়সার সঠিক ব্যবহার করতে পারি, এবং এই মাকড়শা -শক্তিশালী উপাদান হিসাবে ইন্ডাস্ট্রিয়াল উচ্চ প্রক্রিয়াজাত উপাদানের বিকল্প হিসাবে বিপ্লব করতে পারে এবং এটি ইকো ফ্রেন্ডলি হবে এমনকি এটি দ্বারা কৃত্রিম লিগামেন্ট, টেন্ডস এবং সার্জিকাল প্রোডাক্সটস তৈরি তৈরি করা হচ্ছে।

    আমরা মাকড়সা মেরে ফেললে এই নতুনত্ব সম্ভাবনা থেমে যাবে আর এমনকি পৃথিবীটি এর অস্তিত্ব রুদ্ধ হতে পারে।
    যদিও কিছু প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে মাকড়সার অনুপস্থিতিতে মানবজাতি খাদ্য সংকটজনিত কারণে পাঁচ বছরেরও কম সময়ে মারা যাবে, অন্য গবেষকরা আরও সন্দেহবাদী। ব্রাসেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন যে মাকড়সা অন্ধকার বন এবং গভীর তৃণভূমিতে আরও বেশি শিকার করে যা কৃষিক্ষেত্রে তেমন কিছু আমরা বুজতে পারিনা।

    কিছু বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে বাদুড়, পাখি এবং টিকটিকি যেমন জনসংখ্যার বর্ধনের সাথে প্রকৃতি শূন্যতা পূরণ করতে মানিয়ে আছে তাই আমরা সমস্ত মাকড়সা মেরে দেওয়ার পরেও যদি পৃথিবী শেষ না হয়, তবুও তারা আমাদের পরিবেশ ও স্বাস্থ্যে একটি বিশাল এবং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

    সুতরাং আমরা ভিডিওটি দেখার পরে মাকড়সা দেখকলে একটু দয়ালু হওয়া উচিত। মাকড়সার অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখুন এবং এর সাথে বন্ধুত্বের তৈরী করুন। সর্বোপরি, এটি সম্ভবত মশার মতো আরও ঝামেলা পোকার থেকে আপনার বাড়িকে রক্ষণাবেক্ষণ করছে।