KiHobe Latest Articles

RJ Emon
  • 0

রাজার চারজন স্ত্রী

  • 0

Leave an answer

You must login to add an answer.

1 Answer

  1. রাজার চারজন স্ত্রী 

    এক রাজার চার জন স্ত্রী ছিল। রাজা তার সব স্ত্রীকে ভালোবাসতেন । তবে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসতেন চতুর্থ স্ত্রীকে, সব সময় চতুর্থ স্ত্রীর আবদার পূরণ করতে ব্যস্ত থাকতেন। রাজা প্রচুর সোনার গয়না চতুর্থ রাণীকে তার জন্মদিনে উপহার দেন।

    হঠাৎ রাজার মনে একটা প্রশ্ন আসলো আমি যদি মারা যাই তাহলে আমি পরপারে একা থাকতে পারবো না, কারণ আমার চেয়ে বেশি ভালোবাসি আমার স্ত্রীকে। তাই রাজা তার চতুর্থ স্ত্রীকে বললেন আমি যদি মারা যাই তুমি ও কি আমার সঙ্গে মরতে পারবে। চতুর্থ স্ত্রী সাথেসাথে বললো আপনি যদি মারা যান তাহলে আমি আরেকটা বিয়ে করবো।

    কারণ আমি একা থাকতে চাইনা। পরে রাজা তার তৃতীয় স্ত্রীকে বললেন আমি যদি মারা যাই তুমি ও কি আমার সাথে মরতে পারবে। তৃতীয় স্ত্রী বললো দেখুন মহারাজ আমার বয়স খুবই কম আমার বাকি জীবন আরাম আয়েশে কাটাতে চাই।
    পরে রাজা তার দ্বিতীয় স্ত্রীর কাছে গেলেন এবং জিজ্ঞেস করলেন আমি যদি মারা যাই তাহলে তুমি ও কি আমার সাথে মরতে পারবে আমার জন্য।

    দ্বিতীয় স্ত্রী বললো আমার অনেক কাজ থাকে যত অতিথি আত্নীয় স্বজন আসেন সবাইকে দেখাশুনা করতে হয় তাদের অাপ্যায়নের ব্যবস্থা করতে হয় তাই আপনার সঙ্গে আমি মরতে পারবো না। পরে রাজা মন খারাপ করে প্রথম স্ত্রীর কাছে গেলেন এবং তাকে বললেন আমি তোমার প্রতি অনেক অবহেলা করেছি, জানি তুমি কখনও আমার অনুরুধ ফেলতে পারো না আমি সেটা জানি।

    আমি যদি মারা যাই তুমি ও কি আমার সাথে মরতে পারবে। এই কথা শুনার পর প্রথম স্ত্রী বললো দেখুন মহারাজ আমি এই প্রথম আপনার সাথে একমত হতে পারলাম না। আপনি যদি মারা যান তাহলে আমি আপনার মৃত্যুর পর সব আত্নীয়দের খবর দিয়ে জানাবো। আপনার মৃত্যুর পর এই রাজ্য সামলানোর দ্বায়িত্ব আমাকেই নিতে হবে।

    রাজা খুবই হতাশ হয়ে পড়লেন যেই স্ত্রীদের জন্য তিনি সর্বদা এতো কিছু করলেন সেই স্ত্রীরা আজ পর হয়ে গেল। পরে রাজা তার সব ধনস্পদ বিক্রি করে একটি মসজিদ এবং মাদ্রাসায় দান করে দিলেন। এবং তিনি তার বিলাসিতা জীবন ত্যাগ করে সাধারণ একজন মানুষের মতো করে জীবন যাপন করতে শুরু করেন এবং নিজের বাকি জীবন স্রষ্টার ইবাদতে করে কাটিয়ে দেন। এই শিক্ষনীয় গল্পটি পরে অনেক কিছু শিখার আছে।

    চতুর্থ স্ত্রী হচ্ছে আমাদের শরীর যা মৃত্যুর পরে কোনো কাজে লাগবে না। তৃতীয় স্ত্রী হলো আমাদের অহংকার যা মৃত্যুর পর কোনো কজে আসবে না। দ্বিতীয় স্ত্রী হলো ধন সম্পদ যা মৃত্যুর পর আমাদের সাথে যাবে না। প্রথম স্ত্রী হলো আমাদের পরিবার, আত্নীয় স্বজন, বন্ধু বান্ধব।
    তাই আমাদের উচিৎ আমাদের জীবন ইবাদত করে কাটিয়ে দেওয়া। কারণ মৃত্যুর পর আমাদের ইবাদত সঙ্গে যাবে এবং সব পাপ পূণ্যের হিসাব দিবে।